আশি দিনে বিশ্ব ভ্রমন – জুল ভার্ন - Around the World in Eighty Days - Jules Verne

আশি দিনে বিশ্ব ভ্রমন – জুল ভার্ন - Around the World in Eighty Days - Jules Verne

আজকাল যখন কৃত্তিম উপগ্রহ ৮০ মিনিটে পৃথিবীকে ঘুরে আসছে, সেখানে ৮০ দিনের কথা ওঠে কী করে? ‘আশি দিনে পৃথিবী প্রদক্ষিণবা Around the World in eighty days বইটি জুল ভার্নের-এর লেখা। গল্পের ভেতর যে-সময়ের কথা বলা হয়েছে তখন জাহাজ পালের যুগ ছেড়ে সবেমাত্র বাষ্পের যুগে পৌঁছেছে; বোম্বাই থেকে কোলকাতা পর্যন্ত রেললাইন সবটুকু পাতাই হয়নি। এরোপ্লেন দূরের কথা, মোটরগাড়ির পর্যন্ত প্রচলন হয়নি। সে-যুগের কথা চিন্তা করলে, কাজটি সত্যিই বাহবা পাওয়ার যোগ্য।
গল্পের নায়ক ফিলিয়াস ফগ (Phileas Fogg) বেজায় একরোখা এক ভদ্রলোক। বয়স আন্দাজ ৪০, অকৃতদার। লন্ডনের ক্লাবে বসে চ্যালেঞ্জ দিয়ে বসলেন, ৮০ দিনে পৃথিবীটা ঘুরে আসা যায়। অবিশ্বাসে সকলেরই চক্ষু কপালে উঠল। বাজি ধরা হল, যদি ফগ ৮০ দিনে ঘুরে আসতে পারেন তবে ক্লাবের পক্ষ থেকে তাঁকে ২০ হাজার পাউন্ড দেয়া হবে; আর যদি না-পারেন তাহলে ফগকে দিতে হবে ২০ হাজার পাউন্ড।
ফগ বললেন, এখন রাত ৮টা ৪৫ মিনিট। এই মিনিট থেকেই বাজি শুরু হোক। ঠিক ৮০ দিন পর রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে আমি -ক্লাবে এসে পৌছাব; না-পারলে ২০ হাজার পাউন্ড খেসারত দেব।
কিন্তু শেষপর্যন্ত কী হল?
অনেক ঝড়-ঝাপটার পর ফগ যখন লন্ডনে ফিরে এসে পৌঁছলেন, তখন ঘড়ির কাঁটায় ৮টা ৫০ মিনিট। আহ, মাত্র মিনিটের জন্য বাজিতে হেরে গেলাম! বলে দীর্ঘনিশ্বাস ফেললেন ফিলিয়াস ফগ। দুঃখে, ক্ষোভে, লজ্জায় আর ক্লাবের দিকে পা বাড়ালেন না। ক্লান্তপায়ে বাড়িতে গিয়ে শুয়ে পড়লেন। পরদিন সন্ধ্যার দিকে চাকর এসে রিপোর্ট করল, “আজ তো শনিবার। ফিলিয়াস ফগ অবিশ্বাসের সুরে বললেন, না, আজ তো রোববার!
একটু খোঁজ-খবর নিয়ে বুঝতে পারলেন, তিনিই ভুল করেছেন। সেদিনটা ছিল সত্যিই শনিবার। তবে তো এক্ষুনি ছুটে গেলে বাজিতে জিততে পারি। তড়িঘড়ি একটা ঘোড়ার গাড়ি ভাড়া করে ছুটে চললেন। যখন ক্লাবে পৌছলেন, তখন কাঁটায় কাঁটায় ৮টা ৪৫ মিনিট। ফিলিয়াস ফগ শেষপর্যন্ত বাজিতে জিতে গেলেন। এখন প্রশ্ন হল : ফিলিয়াস ফগের ভুল করার কারণটা কী? তার যাত্রাপথ ছিল এরকমএডেন, বোম্বে, কোলকাতা, সাংহাই, ইয়োকোহামা, সানফ্রান্সিসকো, নিউইয়র্ক, লিভারপুল হয়ে লন্ডন। ধরো এডেনের স্থানীয় সময় লন্ডনের থেকে ঘণ্টা বেশি; স্থানীয় সময়ে হিসাব রাখার জন্যে তার সময়ের ধারণা এইভাবে এগিয়ে চলছিল : ইয়োকোহামায় ১০ ঘণ্টা, নিউইয়র্কে ১৯ ঘণ্টা, এবং লিভারপুলে সাড়ে ২৩ ঘণ্টা; যখন ফের লন্ডনে পৌছুলেন তখন পুরা ২৪ ঘণ্টাই বেশি ধরে নিয়েছিলেন। এরকম ভুলভ্রান্তি নিরসনের জন্যই আন্তর্জাতিক তারিখ-রেখার সৃষ্টি। এটা একটা কাল্পনিক রেখা যা মোটামুটি ১৮০০ দ্রাঘিমা রেখার সঙ্গে মিশে রয়েছে। -রেখার পশ্চিমবিন্দুতে যদি আজ হয় ২১ তারিখ বৃহস্পতিবার ৯টা ১৫ মিনিটতবে সেই মুহূর্তে পূর্ববিন্দুতে হবে ২০ তারিখ বুধবার ৯টা ১৫ মিনিট। দুনিয়ার সব জাতিই এই নিয়ম মেনে নিয়েছে। ফিলিয়াস ফগ যদি -রেখা অতিক্রম করার সময় তার তারিখের ধারণা -মতে শুধরিয়ে নিতেন, তবে ৭৯ দিনকে তিনি ৮০ দিন মনে করতেন না। দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে দুটি দ্বীপ আছেফিজি আর তাহিতি। প্রথমটি এই লাইনের পশ্চিমে, আর দ্বিতীয়টি পূর্বে। ফিজি থেকে যদি টেলিগ্রাম পাঠানো যায় জানুয়ারি তবে সেটা তাহিতি পৌছে যাবে ৩১শে ডিসেম্বর অর্থাৎ মনে হবে একদিন আগেই।
একটা কথা এখানে বলে রাখতে হয়। যদি ফিলিয়াস ফগ পূর্বদিকে না গিয়ে পশ্চিমদিক দিয়ে পৃথিবী পরিভ্রমণ করতেন, তা হলে দিন কম না হয়ে বেশি হত। তার মানে তিনি ভুল ধারণায় যাকে ৮০ দিন মনে করতেন সেটা আসলে ৮১ দিন হত।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য